অবাক হলেও সত্য, এই গ্রামের প্রত্যেকের অ্যাকাউন্টে ১ কোটিরও বেশি টাকা

Sept. 21, 2017, 12:23 p.m. ভিন্ন খবর


এই গ্রামে এমন সব বিশ্বমানের বিলাসবহুল সুবিধা আছে যা শুধু কল্পনার জগতেই সম্ভব বলে মনে হবে।  এটি চীনের সবচেয়ে ধনী গ্রাম।  ১৯৫১ সালে স্থানীয় কমিউনিস্ট পার্টির সেক্রেটারি উ রেনবাও গ্রামটি প্রতিষ্ঠা করেন।  এই গ্রামের বাসিন্দাদের প্রত্যেকের অ্যাকাউন্টে ১ কোটির বেশি করে টাকা আছে।


কারু ডেস্ক :
আপনি কি ভাবতে পারেন যদি সরকার আপনাকে একটি বাড়ি, একটি গাড়ি উপহার দেওয়ার পর আপনার অ্যাকাউন্টে ৮৫ লাখ টাকা জমা করে দেয়! শুনে নিশ্চয়ই অসম্ভব মনে হচ্ছে? কিন্তু এমনটাই ঘটেছে চীনের একটি গ্রামে।  গ্রামটির নাম হুয়াক্সি।  যে গ্রামের প্রত্যেককে এই সুবিধাগুলো দেওয়া হয়েছে।  যে গ্রামের প্রত্যেকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টেই ১ কোটিরও বেশি টাকা আছে। 

এই গ্রামে এমন সব বিশ্বমানের বিলাসবহুল সুবিধা আছে যা শুধু কল্পনার জগতেই সম্ভব বলে মনে হবে।  এটি চীনের সবচেয়ে ধনী গ্রাম।  ১৯৫১ সালে স্থানীয় কমিউনিস্ট পার্টির সেক্রেটারি উ রেনবাও গ্রামটি প্রতিষ্ঠা করেন।  এই গ্রামের বাসিন্দাদের প্রত্যেকের অ্যাকাউন্টে ১ কোটির বেশি করে টাকা আছে।  বসবাসের জন্য একটি বাংলো এবং চলাচলের জন্য একটি করে গাড়ি আছে।  গ্রামটির জনসংখ্যা মাত্র ২ হাজার। 
তবে এই গ্রামে বসবাসের জন্য যোগ্য বলে বিবেচিত হওয়া অতটা সহজ নয়।  এই গ্রামে বাস করতে হলে প্রথমেই একজনকে যা করতে হবে তা হলো এই গ্রামের কোনো একটি কম্পানির ফার্মে চাকরি পেতে হবে।  চাকরি পেলেই কেল্লাফতে।  এরপরই শুরু হবে বিলাসবহুল জীবন।  প্রথমেই একটি গাড়ি এবং বাংলো দেওয়া হবে।  এখানেই শেষ নয়।  এই গ্রামের বাসিন্দারা তাদের গন্তব্যে পৌঁছানোর জন্য ট্যাক্সি হিসেবে ব্যবহার করেন হেলিকপ্টার!

কিন্তু এতসব বিলাসব্যসন উপভোগের জন্য একটাই শুধু শর্ত।  কখনো এই গ্রাম ছেড়ে যাওয়া চলবে না।  গ্রাম ছেড়ে যেতে চাইলে সবকিছু রেখে যেতে হবে।  একটি কানাকড়িও সঙ্গে নেওয়া চলবে না!

এই গ্রামের বাসিন্দারা কী ধরনের কাজ করেন? এই গ্রামে রয়েছে স্টিল উৎপাদন, টেক্সটাইল এবং পোশাকশিল্প। 

গ্রামটির আয়তন মাত্র এক বর্গকিলোমিটার! এতে বসবাসের জন্য রয়েছে সেনা ব্যারাক স্টাইলের ডরমিটরি, কারখানা এবং প্যাগোডা।  বিলাসব্যসনের দিক থেকে গ্রামটিকে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ের মতো মনে হতে পারে। 
এই গ্রামে রয়েছে আধুনিক বিলাসব্যসনের সব উপাদান। 

'দ্য ইন্টারন্যাশনাল লাক্সারি লং উইশ হোটেল' নামের একটি অত্যাধুনিক বিলাসবহুল হোটেল রয়েছে এই গ্রাম।  হোটেলটিতে ৮২৬টিরও বেশি কক্ষ রয়েছে।  যার মধ্যে আবার ১৬টি প্রেসিডেন্সিয়াল স্যুটের মতো।  এর সবচেয়ে দামি স্যুটটি হলো গোল্ড প্রেসিডেন্সিয়াল স্যুট।  এর একটি কক্ষে এক রাত থাকার খরচ সাড়ে ১২ লাখ টাকারও বেশি!

এই গ্রামটির আয়তন মাত্র এক বর্গকিলোমিটারেরও কম হওয়া সত্ত্বেও এখানে এমন সব উপাদান রয়েছে যেগুলো পর্যটকদের নজর কাড়তে সক্ষম।  এর আকাশচুম্বী ভবনটি দেখতে বেশ উঁচু মনে হয় এবং অদ্ভুতরকম বেমানান লাগে! এই অদ্ভুত দর্শন আকাশচুম্বী ভবনটি ৭২টি স্টোরির একটি ভবন।  একে হুয়াক্সির ঝুলন্ত গ্রাম নামে ডাকা হয়।  এই ভবনটির উচ্চতা ৩২৮ মিটার যা ফ্রান্সের আইফেল টাওয়ার থেকে ৪ মিটার বেশি উঁচু!