দেড় মিনিটের সচেতনতায় কমবে রাতের স্ট্রোক

June 17, 2017, 1:39 a.m. মানব দেহ

হুট করে ঘুম থেকে উঠেই দাঁড়িয়ে পড়ার কারণে আপনার ব্রেইনে সঠিক ভাবে অক্সিজেন পৌঁছাতে পারে না, যার ফলে হতে পারে হার্ট অ্যাটাকের মতো ঘটনাও।

মানব দেহ ডেস্ক : অনেক সুস্থ মানুষই ঘুম থেকে উঠে বাথরুমে গেলেন বা ঘুম থেকে উঠে দাঁড়ালেন আর স্ট্রোক করে মুত্যুর কোলে ঢলে পারলেন। প্রায়ই আমরা এমন খবর শুনে থাকি। মাত্র দেড় মিনিট সচেতন হয়ে চললে এ স্ট্রোকের ঝুঁকি থেকে অনেকাংশেই বাঁচা যায়।

রাতে বা ভোরে বাথরুমে যাওয়ার জন্য ঘুম থেকে ওঠার জন্য ডাক্তারদের একটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ উপদেশ হলো –

আমরা প্রায়ই শুনতে পাই একেবারে সুস্থ একজন মানুষ রাতের বেলা হঠাৎ মারা গেছেন। এটার একটা কারণ হচ্ছে রাতে বাথরুমে যাওয়ার জন্য ঘুম ভেঙে গেলে আমরা তাড়াহুড়ো করে হঠাৎ উঠে দাঁড়িয়ে পড়ি। যা ব্রেইনে রক্তের প্রবাহ কমিয়ে দেয়। এটা আপনার ইসিজি প্যাটার্নও বদলে দেয়।

হুট করে ঘুম থেকে উঠেই দাঁড়িয়ে পড়ার কারণে আপনার ব্রেইনে সঠিক ভাবে অক্সিজেন পৌঁছাতে পারে না, যার ফলে হতে পারে হার্ট অ্যাটাকের মতো ঘটনাও।

ডাক্তাররা ঘুম থেকে উঠে বাথরুমে যাওয়ার আগে সবাইকে ‘দেড় মিনিট’ সময় নেওয়ার একটি ফর্মুলা আবিস্কার করেছেন। এ দেড় মিনিট সময় নেওয়াটা জরুরি কারণ এটা কমিয়ে আনবে আপনার আকস্মিক মৃত্যুর শঙ্কা।

হঠাৎ এ উঠে পড়ার সময়ে যেই দেড় মিনিটের ফর্মুলা বাঁচিয়ে দিতে পারে আমাদের জীবন তা হলো-

১। যখন ঘুম থেকে উঠবেন, হুট করে না উঠে কমপক্ষে ৩০ সেকেন্ড বিছানায় শুয়ে থাকুন।

২। এরপর উঠে ৩০ সেকেন্ড বিছানায় বসে থাকুন। এবং

৩। শেষ ৩০ সেকেন্ড বিছানা থেকে পা নামিয়ে বসে থাকুন।

এ দেড় মিনিটের কাজ শেষ হবার পর আপনার ব্রেইনে পর্যাপ্ত পরিমাণে অক্সিজেন পৌঁছে যাবে যা আপনার হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি একদম কমিয়ে আনবে। যেকোনো বয়সের মানুষের ক্ষেত্রেই এমন দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তাই এ অকাল মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচার জন্য সচেতনতা প্রয়োজন।

blog comments powered by Disqus