ভারি বৃষ্টিপাতে এশিয়ার বিভিন্ন দেশে ভয়াবহ বন্যা

July 16, 2017, 10:55 a.m. আন্তর্জাতিক

ভারি বৃষ্টিপাতের কারণে চীন, ভারত ও জাপানসহ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে ভয়াবহ বন্যা দেখা দিয়েছে।

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ টানা বৃষ্টিতে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি এবং ভূমিধ্বসে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় এলাকাগুলোতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮০ জন ছাড়িয়ে গেছে। আর বাস্তুচ্যুত হয়েছেন ২০ লাখেরও বেশি মানুষ।

এছাড়া, ব্যাপক বন্যা দেখা দেওয়ায় চীনের দক্ষিণাঞ্চলে ৭৫ হাজার মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় পানিবন্দি হয়ে আছে আড়াই লাখেরও বেশি মানুষ।
পরিবেশবিদরা বলছেন, জলবায়ু পরিবর্তন এবং বড় দেশগুলোর ব্যাপক মাত্রায় কার্বন নিঃসরণের কারণেই আগাম বন্যার সৃষ্টি।

চারদিকে শুধু পানি আর পানি। টানা বৃষ্টিতে পানির নিচে তলিয়ে গেছে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বিস্তীর্ণ এলাকা। আসাম, মণিপুর এবং অরুণাচল প্রদেশের বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও প্রধান প্রধান নদীগুলোর পানি এখনো বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। শুক্রবার আসামের বন্যা পরিস্থিতি আকাশপথে ঘুরে দেখেন রাজ্যপাল বনোয়ারি লাল পুরোহিত।

ভয়াবহ এ বন্যায় দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলে মৃতের সংখ্যা ৮০ জন ছাড়িয়েছে। এরমধ্যে কেবল আসামেই মারা গেছে অন্তত ৫৭ জন। এছাড়া, বাস্তুচ্যুত হয়েছেন ২০ লাখেরও বেশি মানুষ। পশুপাখির প্রাণহানিসহ ফসলি জমি তলিয়ে যাওয়ায় ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়েছেন বন্যা কবলিত এলাকার মানুষ।

বন্যা দুর্গত এলাকার মানুষের মাঝে ত্রাণ ও উদ্ধারকাজে তদারকির জন্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিরণ রিজেজুর নেতৃত্বে একটি দল গঠন করেছে ভারত সরকার। এছাড়া, বন্যা কবলিতদের সহায়তায় কর্মকর্তাদের এলাকা পরিদর্শনের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

দু'সপ্তাহের অব্যাহত বৃষ্টিতে আসামের কাজিরাঙ্গা ন্যাশনাল পার্কের বেশির ভাগ তলিয়ে যাওয়ায় পশুপাখির প্রাণহানিসহ ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। এরইমধ্যে পশু-পাখিদের রক্ষায় সেখানকার রাস্তাগুলোতে রাতের বেলা যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কর্তৃপক্ষ।

চীন: ভারি বৃষ্টিপাতের কারণে চীনের দক্ষিণাঞ্চলেও ভয়াবহ বন্যা দেখা দিয়েছে। প্রাণহানি ও ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে বন্যা কবলিত এলাকা থেকে শুক্রবার অন্তত ৭৫ হাজার মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে আনা হয়। এখনো আড়াই লাখের বেশি মানুষ পানিবন্দি অবস্থায় মানবেতর জীবন-যাপন করছে বলে জানায় স্থানীয়রা। শুকনো খাবার ও পানির সঙ্কট দেখা দেওয়ায় বিপাকে পড়েছেন তারা।

এক ব্যক্তি বরেন, এখানকার সব স্কুল-কলেজ ডুবে গেছে। আশ্রয় নেওয়ার মতো কোনো জায়গা নেই। কেবল আমাদের এখানেই অন্তত ৮শ' জনকে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। আশা করি স্থানীয় কর্তৃপক্ষ আমাদের সব ধরনের সহযোগিতা করবেন।

জাপান: জাপানের মধ্যাঞ্চলে ভারি বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় পানির নিচে তলিয়ে গেছে বহু এলাকা। রাস্তা-ঘাট ডুবে যাওয়ায় বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থা। বাড়ি-ঘরে পানি ঢুকে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন বাসিন্দারা।

স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, কিছুক্ষণ আগে ভয়াবহ বৃষ্টি ও বজ্রপাত হয়েছে। আমরা খুবই ভীত হয়ে পড়েছিলাম। ভেবেছিলাম বৃষ্টি মনে হয় দীর্ঘ সময় থাকবে। কিন্তু না বৃষ্টির পর সূর্যের দেখা মিলেছে। আশা করি, কয়েকদিনের মধ্যেই পরিস্থিতির উন্নতি হবে।

এছাড়া, ভিয়েতনামসহ এশিয়ার আরো কয়েকটি দেশে অব্যাহত ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে বন্যা দেখা দিয়েছে। জলবায়ু পরিবর্তন এবং বড় দেশগুলোর ব্যাপক মাত্রায় কার্বন নিঃসরণকেই আগাম বন্যার জন্য দায়ী করছেন পরিবেশবিদরা।

blog comments powered by Disqus