মানিকগঞ্জে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

Feb. 21, 2018, 1:43 p.m. সমগ্র বাংলা


মানিকগঞ্জে পুস্পস্তবক অর্পন, শোকর‌্যালীসহ নানা আয়োজনে লাখো মানুষের সরব উপস্থিতি আর ফুলেল শ্রদ্ধায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করা হয়। ভাষা আন্দোলনে  ভাষার জন্য শহীদদের শ্রদ্ধা নিবেদন করতে দিনটির প্রথম প্রহর থেকেই শুরু হয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন।

অসীম শিকদার, মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি:

মানিকগঞ্জে পুস্পস্তবক অর্পন, শোকর‌্যালীসহ নানা আয়োজনে লাখো মানুষের সরব উপস্থিতি আর ফুলেল শ্রদ্ধায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করা হয়। ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে  ভাষার জন্য আত্মত্যাগী শহীদদের শ্রদ্ধা নিবেদন করতে দিনটির প্রথম প্রহর থেকেই শুরু হয় জেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন। যথাযথ মর্যাদায় আলাদা আলাদা র‌্যালী নিয়ে পুস্পস্তবক অপর্ন করেন জেলা জজশীপ ও ম্যাজিট্রেসি, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, জেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠন, জেলা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ), জাতিয় পার্টিসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দল, প্রেশ ক্লাব, সাংবাদিক সমিতি, আইনজীবি সমিতি, সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারী এসকে বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সরকারী আধাসরকারী ও বিভিন্ন এনজিও প্রতিষ্ঠানসহ অন্যান্য সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন।

বুধবার সকালে সময় বাড়ার সাথে সাথে বাড়তে থাকে মানুষের উপস্থিতি। সকাল ৮ টায় জেলা প্রশাসনের আয়োজনে এক শোক র‌্যালি বের হয়। শোকর‌্যালীতে অংশ ন্যায় জেলা প্রশাসক নাজমুছ সাদাত সেলিম, উপ-পরিচালক (উপ-সচিব) স্থানীয় সরকার মোঃ আব্দুল মাতিন, অতিঃ পুলিশ সুপার (সার্বিক) মহি উদ্দিন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী-লীগ এর সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড. গোলাম মহিউদ্দিন, পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা গাজী কামরুল হুদা সেলিম, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক সুলতানুল আজম আপেলসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক শিক্ষার্থী, সরকারী আধাসরকারী ও এনজিও কর্মকর্তা, কর্মচারীসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার সর্বস্তরের মানুষ। বুকে কালো ব্যাচ ধারন করে শোকর‌্যালীটি মানিকগঞ্জের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করেন। এছাড়াও শহরের প্রধান সড়ক শহীদ রফিক সড়কের প্রবেশদারে অবস্থিত শহীদ রফিক চত্তরে উদিচি শিল্পগোষ্ঠির পরিবেশনায় দিনের প্রথম প্রহর থেকেই চলে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। চারদিক থেকেই ভেষে আসছিল চিরচেনা সেই সুর ”আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙ্গানো একুশে ফেব্র“য়ারী আমি কি ভুলিতে পারি.. ..।

১৯৫২ সালের ২১শে ফেব্র“য়ারী, মাতৃভাষা আন্দোলনের ৬৬ বছর পূর্ণ আমাদের বাঙ্গালী জাতির জন্য একটি গৌরব উজ্জ্বল চরম শোক ও বেদনার দিন। ইতিহাসের এই দিনেই মাতৃভাষার জন্য রাজপথে জীবন বিসর্জন দিয়ে বিশ্বের ইতিহাসে মাতৃভাষা প্রতিষ্ঠিত করেছিল রফিক, সালাম, জব্বার, শফিক ও বরকত । তাই এই দিনটি র্স্বীকৃতি পেয়েছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে। জাতিসংঘসহ সারা বিশ্বে ভাষা শহীদদের স্মরণে দিনটি যথাযথ মর্জাদায় পালিত হচ্ছে।

ভাষার জন্য প্রথম, শহীদ রফিক হয়ে সতের কোটি মানুষের অন্তরে বিরাজমান শহীদ রফিকের বাড়ি মানিকগঞ্জ সিংগাইরের রফিক নগরে হওয়ায়, সিংগাইরে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে দিনটিকে বিশেষ মর্জাদায় উদযাপন করা হয়। এছাড়াও দিবসটি উপলক্ষে জেলার প্রতিটি উপজেলায় পুস্পস্তবক অর্পনসহ বিশেষ উনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।