যে শহরের মানুষ কথা বলে ১৪০ ভাষায়

Aug. 6, 2017, 4:33 p.m. ভিন্ন খবর


এ শহরে বর্তমানে দ্রুত জনবৃদ্ধি ঘটছে। পরিসংখ্যানে প্রকাশ, প্রতি বছর এ শহরে এক লাখ মানুষ বাড়ছে, যাদের অধিকাংশই বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা।


কারু ডেস্ক :
কানাডার টরেন্টো নগরীর কথা অনেকেই জানেন। এটি কানাডার সর্বাপেক্ষা জনবহুল শহর। কিন্তু অনেকেরেই হয়ত জানা নেই যে, এ শহরের মানুষ ১৪০টি ভাষায় কথা বলে।

টরন্টো নগরীতে বহু বছর ধরে বিশ্বের নানা প্রান্ত থেকে অভিবাসীরা এসে নিজেদের ঠিকানা খুঁজে নিয়েছে। আর এ কারণে এ শহরের মানুষের মাঝে রয়েছে অসংখ্য সংস্কৃতির সমাহার। বহু বর্ণের মানুষের জন্য এ শহরটি এক উদাহরণ।

বসবাস যোগ্যতার দিক দিয়েও টরন্টো শহরটি বিশ্বের শীর্ষস্থানীয়। বেশ কয়েক বছর বিশ্বের সেরা বসবাসযোগ্য শহরের স্বীকৃতি পেয়েছে টরন্টো। জীবনযাত্রার ব্যয়, বসবাস যোগ্যতা, নিরাপত্তা, ব্যবসায়িক পরিবেশ, গণতান্ত্রিক চর্চা, সাংস্কৃতিক ও সৃষ্টিশীলতার বিবেচনায় এ স্বীকৃতি পেয়েছে টরন্টো।

টরন্টো খুবই পরিচ্ছন্ন, সুশৃঙ্খল ও খোলামেলা একটি শহর। ৫০ লাখ জনঅধ্যুষিত নগরীর ১৮ শতাংশ এলাকা হচ্ছে পার্ক। যা এ ধরনের সিটির ক্ষেত্রে বিস্ময়কর।

এ কারণে অনেকেই টরন্টোকে বলেন সিটি অব পার্ক। এ শহরে বর্তমানে দ্রুত জনবৃদ্ধি ঘটছে। পরিসংখ্যানে প্রকাশ, প্রতি বছর এ শহরে এক লাখ মানুষ বাড়ছে, যাদের অধিকাংশই বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা।

পরিসংখ্যানে প্রকাশ, এ শহরের মানুষেরা প্রায় ১৪০টি ভাষায় কথা বলেন। এ কারণে সমগ্র বিশ্বকেই যেন খুঁজে পাওয়া যায় টরন্টোতে।

blog comments powered by Disqus